ইতিহাসনামায় আপনাকে স্বাগতম

কোয়ারেন্টাইন শব্দের ইতিহাস । History of Quarantine - লিখেছেন - আনাস রোহান

বর্তমান করোনা মহামারীর সময় আমরা সবাই একটি শব্দের সাথে সুপরিচিত হয়ে উঠেছি। শব্দটি হল "কোয়ারেন্টাইন"। স্বেচ্ছায় হোক বা সরকারের আদেশে ,আমরা এখন ঘরবন্দী হয়ে কোয়ারেন্টাইন পালন করছি। আচ্ছা কখনো কি মনের ক্যানভাসে প্রশ্নটি উঁকি দিয়েছে যে, কোয়ারান্টাইন শব্দটি আসলো কোথা থেকে?

কোয়ারান্টাইন শব্দটির উৎপত্তি জানতে হলে আমাদেরকে পূর্বের মহামারি ও সেইসময়কার অবস্থা জানা দরকার। ১৪ শতকের মাঝমাঝিতে ইউরোপ ব্যাপী বুবোনিক প্লেগ হানা দিয়েছিল। ১৩৪৭ সাল থেকে ১৩৫০, এই তিন বছরে ইউরোপের মোট জনসংখ্যার এক-তৃতীয়াংশ মৃত্যুবরন করে এই প্লেগে আক্রান্ত হয়ে। সেই সময়কার পরিস্থিতিতে, সংক্রমন বা জীবাণু বিষয়ে বিশেষ জ্ঞান ছিলোনা মানুষের। কিন্তু, শোনা যায় ক্রোয়েশিয়ার একটি বন্দর শহর রাগুসা (বর্তমানে যা ডাবরোবনিক নামে পরিচিত) তে বন্দরে আসা জাহাজ, যেগুলো হয়তো মহামারি আক্রান্ত শহর থেকে আগত বলে ধারণা করা হতো, তাদের দূরে রাখা হতো।একে তখন বলা হতো ট্রেনটিনো (Trentino) মানে ত্রিশ দিন আলাদা থাকা।তার পরবর্তী আশি বছর সময়কাল এটি বজায় ছিল।

ছবিঃরাগুসা শহর

১৫ শতকের দিকে পিসা,মার্সেইলিস এবং অন্যান্য শহরও এটি মানতে শুরু করল।তার পরবর্তী একশত বছরে এটিকে পরিবর্তন করে কোয়ারেন্টিনো (Quarantino) নাম দেয়া হয়। কোয়ারান্তা অর্থ চল্লিশ আর কোয়ারেন্টিনো মানে চল্লিশ দিন।তারপর থেকে কোনো অঞ্চলে মহামারি হলে সংক্রমন রোধের জন্য তাকে পৃথক করে রাখা হতো চল্লিশ দিন করে।
তবে কেন এটিকে চল্লিশ দিন ধরা হয়েছে তার কারন অতটা স্পষ্টভাবে জানা যায় না।তবে দেখা যায় যে নামকরনের পিছনে বাইবেলের কিছু ঘটনার প্রভাব পাওয়া যায়। যীশু ৪০ দিন মরুভূমিতে রোযা রেখেছেন,মুসা (আঃ) ৪০ দিন সিনাই পর্বতে ছিলেন ইত্যাদি ঘটনার উল্লেখ পাওয়া যায়।আবার তখনকার কেউ কেউ মনে করতেন ৩০ দিন রোগ চলে যাওয়ার জন্য যথেষ্ট নয়। 


ছবিঃরেজিও শহর

কোয়ারেন্টাইন এর দাপ্তরিক প্রতিষ্ঠার পূর্বে ইটালির রেজিও (Reggio) তে যারা মহামারি প্লেগে আক্রান্ত হত তাদের শহরের বাইরে নীরোগ হওয়া অথবা মৃত্যুর জন্য ফেলে আসা হত। ১৩৭৪ সালে ভেনিসের রেজিওতে প্রথম ল্যাজারেট (lazaret) স্থাপন করা হয় একটি ছোটো দ্বীপে। এটি মূলত ছিল কোয়াররেন্টাইনকৃতদের আলাদা রাখার জন্য একটি আবাস। এভাবেই বিভিন্ন দেশে বিভিন্ন সময়ে কোয়ারেন্টাইন আবাস স্থাপন করা হয়। ১৪৬৭ এ Genoa শহর ভেনিসের অনুকরনে ল্যাজারেট গড়ে তুলে। ১৫২৬ সালে Pomegues দ্বীপে গড়ে তোলা ল্যাজারেট কে, Marseille শহরের প্রথম পরিপূর্ণ আনাস বলা হয়। তারপর ধীরে ধীরে কোয়ারেন্টিন হতে কোয়ারেন্টাইন শব্দের প্রচলন হতে লাগল।

ছবিঃমার্সেইলি শহরের মানচিত্র


আর এভাবেই সময়ের এগিয়ে চলার সাথে সাথে বিভিন্ন দেশ, দাপ্তরিক পর্যায়ে কোয়ারেন্টাইন আইন পাশ করতে থাকে এবং তা জাতীয়করণ করতে থাকে।
১৯১২ সালে প্যারিসে ৪০ টি দেশ একটি সম্মেলনে, সংক্রমন রোধে একটি আইনে স্বাক্ষর করে।পরবর্তীতে ১৯২৬ সালে পুনরায় ৫৮ টি দেশ স্বাক্ষর করে বর্তমানে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নিয়ম মেনে চলে থাকে দেশগুলো।

আমরা আশা করি, বর্তমান পরিস্থিতিতে আপনিও বাসায় কোয়ারেন্টাইন মেনে চলবেন এবং আপনার ও আপনার পরিবারের সুস্থতা নিশ্চিত করবেন।

আরো জানার আগ্রহ থাকলে আমাদের ইউটিউবে এ সংক্রান্ত ভিডিওটি দেখতে পারেন।


লেখকঃ আনাস রোহান

ইতিহাসনাম.কম এর তিনজন সহ-প্রতিষ্ঠাতার একজন।বিক্ষিপ্ত মনের অধিকারী।