ইতিহাসনামায় আপনাকে স্বাগতম

কবিতাঃশতাব্দীর ছিন্নভিন্ন বিজ্ঞাপন - লিখেছেন - মোবারক ইবনে মনির

১.
বিষন্ন এক প্রভাতে ঘুমন্ত ছিল সূর্য।
বাষ্প হয়ে ভেসে বেড়াতে চেয়েছে মেঘের সাথে।
অকালে বিদায় নিল একবিংশ শতাব্দীর কাছ থেকে।

২.
 তারারা সেদিন খুব কেঁদেছিল।
নিজেরাও বাঁচতে চেয়েছিল এ শতাব্দী থেকে।
মহা বিস্ফোরণের ভয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে যুগ-যুগান্তরে।

৩.
কোন আলো নেই।
নেই অন্ধকারের দেখা।
এখন আর পৃথিবী সকাল-সন্ধ্যার আহ্বান জানায় না।
মুমূর্ষ হয়ে গেছে হৃদয়।

৪.
 প্রেম নামের কোন আর্তনাদ নেই।
সাড়া নেই ভালোবাসার।
অনুভূতির দরজা-জানালাগুলো বংশগত ধারাবাহিকতায় বন্ধ হয়ে গেছে।

৫.
 বাস্তব-অবাস্তব ও সত্য-মিথ্যার পার্থক্যের জন্য কোন যন্ত্র আবিষ্কার করা হয়নি।
দেয়ালের আড়ালেই থাকুক সব নিষ্ঠুরতা।

 ৬.
ঘুমন্ত নদীগুলো আজ উচ্ছ্বাসিত।
সময়ের পাখায় আগুন।
আবেগের নেই কোন উদ্রেক।
সৌরজগতের গ্রহে পুঁতে রাখা হয়েছে মস্তিষ্ক।

 ৭.
প্রশ্ন নামের শব্দগুলো দেয়ালে দেয়ালে চিত্রায়িত হয় না।
ব্যক্তিগত অস্ত্রের কাছে বিক্রিত দেহ।
নিঃশব্দের ঘুরপাকে সৃষ্টি হয়েছে মৃত্যু।

৮.
সর্বত্রই রঙিন।
তবে সেগুলো রঙ নয়।
অন্ধের চোখের উপর শূন্যের উড়াউড়ি।

 ৯.
প্রত্যেক প্রাণী জড়বস্তুুর মতো বেড়ে ওঠে।
স্বাধীনতা শব্দটি খুবই ক্লান্ত।
হয়তো কালের গহ্বরে বিলুপ্ত হয়ে গেছে।
ধোঁয়া উঠছে। নোংরা ধোঁয়া।
শরীর থেকে হাত-পা ছুড়ে মারছে ধোঁয়ার দিকে। যেন বিস্মৃত হয়ে যায়।

১০.
এখানে জন্মেরা বসবাস করে না।
চাষ করা হয় না বিশ্বাস।
সংসার গড়ার কারখানা স্থাপন করা যায় না।
অনুবাদ করা হয় না মনুষ্য সত্ত্বা।
স্মৃতির কোন উৎস পাওয়া যায় না।
আশ্চর্য কিছু গন্ধ!
নিঃসঙ্গের কিছু ধ্বনি।

তৃষ্ণার্তরা জল খুঁজে পায় না পানির ভিতরে।

কেবল জগতজুড়ে অবশিষ্ট সংখ্যালঘু স্বপ্নের দল।



+

লেখকঃ মোবারক ইবনে মনির

বাস্তবতার সন্ধানে বই পড়া। সময়ে-অসময়ে একাকী পথ হাঁটা। গান শুনতে ভালোবাসা। আর একজন আপাদমস্তক ইসলাম প্রেমিক।